কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো: হিডেন চার্জ নাই, EMI সুবিধা & ডুয়েল কারেন্সি

আজকের দিনে কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো ? এ প্রশ্নটা সবার মনে আসছে কারণ ক্রেডিট কার্ড আমাদের জীবনে এক অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। দৈনন্দিন খরচ থেকে শুরু করে ইমার্জেন্সি ক্ষেত্রে ক্রেডিট কার্ডের ব্যবহার দিন দিন বেড়েই চলেছে। কিন্তু সঠিক ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড নির্বাচন করা একটা চ্যালেঞ্জ হতে পারে। এই নিবন্ধে আমরা জানব, কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো, যার হিডেন চার্জ নাই, EMI সুবিধা আছে, এবং ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট করে।

কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো
কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো

কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো ? এই প্রশ্নটি উত্তর দেওয়ার জন্য আমি 10টি বাংলাদেশি জনপ্রিয় ব্যাংক সিলেক্ট করেছি, যেগুলো ক্রেডিট কার্ড ভালো। কারণ এই দশটি ব্যাংক ক্রেডিট কার্ডের হিডেন চার্জ নেই, EMI সুবিধা এবং ডুয়েল কারেন্সি প্রোভাইড করে।

সূচিপত্র

কেন ক্রেডিট কার্ড গুরুত্বপূর্ণ?

ক্রেডিট কার্ড শুধু টাকা ধার দেয় না, এটি একটি শক্তিশালী আর্থিক হাতিয়ার যা সঠিকভাবে ব্যবহৃত হলে আপনার আর্থিক স্বাধীনতা ও সুবিধা বাড়াতে পারে। ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন প্রকার ডিসকাউন্ট, ক্যাশব্যাক, এবং লয়ালটি পয়েন্ট অর্জন করতে পারেন যা আপনার দৈনন্দিন খরচে সাশ্রয় করতে সহায়তা করে।

কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো?

এখানে আমরা ১০টি সেরা ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডের তালিকা দেব, যা আপনার জন্য সেরা হতে পারে। এই তালিকা প্রস্তুত করতে আমরা ক্রেডিট কার্ডের ফি, সুবিধা, এবং কাস্টমার সার্ভিস বিবেচনা করেছি।

১. সিটি ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড

  • হিডেন চার্জ নাই
  • EMI সুবিধা: হ্যাঁ
  • ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট: হ্যাঁ

কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো: এর এ প্রশ্নের সবচেয়ে ভালো উত্তর হচ্ছে সিটি ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড বাজারে সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং প্রাচীন এবং ভালো। এর কাস্টমার সার্ভিস অত্যন্ত প্রশংসিত এবং এটির মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন প্রকার অফার এবং ডিসকাউন্ট উপভোগ করতে পারবেন।

সিটি ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার যোগ্যতা: সার্ভিস চার্জ, অফার ও সুবিধা

২. স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড

  • হিডেন চার্জ নাই
  • EMI সুবিধা: হ্যাঁ
  • ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট: হ্যাঁ

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক ক্রেডিট কার্ডে বিভিন্ন ধরনের অফার এবং সুবিধা পাওয়া যায়। এছাড়া, এর ইন্টারন্যাশনাল একসেপ্টেন্স খুবই ভালো।

৩. ব্র্যাক ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড

  • হিডেন চার্জ নাই
  • EMI সুবিধা: হ্যাঁ
  • ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট: হ্যাঁ

ব্র্যাক ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে বিভিন্ন শপিং ডিসকাউন্ট এবং ক্যাশব্যাক সুবিধা রয়েছে। এছাড়া এর কাস্টমার সার্ভিস খুবই ভালো।

৪. এইচএসবিসি ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড

  • হিডেন চার্জ নাই
  • EMI সুবিধা: হ্যাঁ
  • ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট: হ্যাঁ

এইচএসবিসি ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে আন্তর্জাতিক সাপোর্ট খুবই ভালো এবং এতে অনেক প্রকার অফার পাওয়া যায়।

৫. ডাচ-বাংলা ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড

  • হিডেন চার্জ নাই
  • EMI সুবিধা: হ্যাঁ
  • ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট: হ্যাঁ

ডাচ-বাংলা ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে বিভিন্ন প্রকার EMI সুবিধা এবং লয়ালটি পয়েন্ট পাওয়া যায়।

৬. প্রাইম ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড

  • হিডেন চার্জ নাই
  • EMI সুবিধা: হ্যাঁ
  • ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট: হ্যাঁ

প্রাইম ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে বিভিন্ন প্রকার শপিং এবং ডাইনিং ডিসকাউন্ট পাওয়া যায়।

৭. রূপালী ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড

  • হিডেন চার্জ নাই
  • EMI সুবিধা: হ্যাঁ
  • ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট: হ্যাঁ

রূপালী ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে বিভিন্ন প্রকার অফার এবং লয়ালটি পয়েন্ট পাওয়া যায়।

৮. ব্যাংক এশিয়া ক্রেডিট কার্ড

  • হিডেন চার্জ নাই
  • EMI সুবিধা: হ্যাঁ
  • ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট: হ্যাঁ

ব্যাংক এশিয়ার ক্রেডিট কার্ডে বিভিন্ন শপিং এবং ট্রাভেল অফার পাওয়া যায়।

৯. মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড

  • হিডেন চার্জ নাই
  • EMI সুবিধা: হ্যাঁ
  • ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট: হ্যাঁ

মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে লয়ালটি পয়েন্ট এবং ক্যাশব্যাক সুবিধা রয়েছে।

১০. এসএইচবিসি ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড

  • হিডেন চার্জ নাই
  • EMI সুবিধা: হ্যাঁ
  • ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট: হ্যাঁ

এসএইচবিসি ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে বিভিন্ন প্রকার আন্তর্জাতিক সাপোর্ট এবং অফার পাওয়া যায়।

ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার যোগ্যতা

ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার জন্য কয়েকটি যোগ্যতা থাকতে হয়। এখানে সেগুলোর তালিকা দেওয়া হলো:

  1. বয়স: সাধারণত ১৮ বছর থেকে ৬০ বছর বয়সীদের ক্রেডিট কার্ডের আবেদন করার যোগ্যতা থাকে।
  2. আয়ের পরিমাণ: আপনার মাসিক বা বার্ষিক আয় একটি নির্দিষ্ট পরিমাণের বেশি হতে হবে।
  3. ক্রেডিট স্কোর: ভালো ক্রেডিট স্কোর থাকলে ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি।
  4. চাকরির ধরন: সরকারী বা বেসরকারী চাকরিজীবী, ব্যবসায়ী বা ফ্রিল্যান্সার হিসেবে কাজ করা ব্যক্তিরা ক্রেডিট কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন।

ক্রেডিট কার্ড খরচ

ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের সাথে কিছু খরচও যুক্ত থাকে। এখানে কিছু সাধারণ খরচের তালিকা দেওয়া হলো:

  1. বার্ষিক ফি: কিছু কিছু ব্যাংক ক্রেডিট কার্ডের জন্য বার্ষিক ফি চার্জ করে।
  2. ইন্টারেস্ট রেট: যদি আপনি সময়মত আপনার বিল পরিশোধ না করেন, তাহলে ব্যাংক ইন্টারেস্ট চার্জ করতে পারে।
  3. লেট পেমেন্ট ফি: সময়মত বিল না পরিশোধ করলে লেট পেমেন্ট ফি দিতে হতে পারে।
  4. ক্যাশ এডভান্স ফি: কিছু কিছু ক্ষেত্রে ব্যাংক ক্যাশ এডভান্সের জন্য অতিরিক্ত ফি চার্জ করতে পারে।

বাংলাদেশের সকল অনলাইন পত্রিকা – দৈনিক বাংলা পত্রিকা অনলাইন

FAQs (প্রায় জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন)

১. কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো?

যেসব ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডে হিডেন চার্জ নেই, EMI সুবিধা রয়েছে এবং ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট করে সেগুলো ভালো। উপরে উল্লেখিত ১০টি ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড এ বিষয়গুলো বিবেচনা করে বেছে নেওয়া হয়েছে।

২. ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার জন্য কী যোগ্যতা থাকা দরকার?

ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার জন্য আপনার বয়স, আয়ের পরিমাণ, ক্রেডিট স্কোর এবং চাকরির ধরন বিবেচনা করা হয়।

৩. ক্রেডিট কার্ডে কোন কোন খরচ থাকে?

ক্রেডিট কার্ডে বার্ষিক ফি, ইন্টারেস্ট রেট, লেট পেমেন্ট ফি, এবং ক্যাশ এডভান্স ফি থাকে।

৪. EMI সুবিধা কী?

EMI সুবিধা হলো আপনি বড় অংকের বিল বা খরচকে ছোট ছোট মাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করতে পারবেন।

৫. ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট কী?

ডুয়েল কারেন্সি সাপোর্ট মানে আপনি একই কার্ড দিয়ে বিভিন্ন দেশের মুদ্রায় লেনদেন করতে পারবেন।

উপসংহার

সঠিক ক্রেডিট কার্ড নির্বাচন করা একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ। কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো তা নির্ভর করে আপনার ব্যক্তিগত প্রয়োজন এবং ব্যাংকের প্রস্তাবিত সুবিধার উপর। উপরে উল্লিখিত ব্যাংকগুলোর ক্রেডিট কার্ডগুলোর মধ্যে থেকে আপনার জন্য সেরা ক্রেডিট কার্ড বেছে নিন এবং সঠিকভাবে ব্যবহার করুন। সঠিক ব্যবহারে ক্রেডিট কার্ড আপনার আর্থিক জীবনকে আরও সহজ এবং সাশ্রয়ী করতে পারে।

কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো! আশা করি এই প্রশ্নটি আপনার মনে আর নেই কারণ বাংলাদেশের সেরা ১০ টি ব্যাংকের নাম আমি উপরে উল্লেখ্য করছি যেগুলি যেগুলির ক্রেডিট কার্ডগুলো ভালো কারণ কোন হিডেন চার্জ নেই সুবিধা এবং ডুয়েল কারেন্সি প্রোভাইড করে

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top