ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল

বর্তমান সময়ে মোবাইল ফোন আমাদের দৈনন্দিন জীবনের একটি অপরিহার্য অংশ হয়ে উঠেছে। মোবাইল ছাড়া আমাদের দৈনন্দিন কাজকর্ম সম্পন্ন করা প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে। তবে, অনেক সময় নতুন মোবাইল ফোন কেনার সময় অর্থের সমস্যা দেখা দেয়। এই সমস্যার সমাধান করতে, বেশ কিছু কোম্পানি এবং ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল কেনার সুবিধা প্রদান করে থাকে।

ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল
ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল

এই আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করব কিভাবে ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল কেনা যায় এবং ২০২৪ সালে কোন কোন পদ্ধতি এবং সুবিধাগুলো উপলব্ধ আছে।

সূচিপত্র

ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল কেনার সুবিধা

ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল কেনার বেশ কিছু সুবিধা রয়েছে, যেমন:

  1. অর্থনৈতিক সুবিধা: একসাথে পুরো টাকা পরিশোধের পরিবর্তে কিস্তিতে টাকা পরিশোধ করা যায়, যা আর্থিকভাবে সহজ।
  2. সহজ প্রক্রিয়া: ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল কেনার প্রক্রিয়া সাধারণত খুবই সহজ এবং ঝামেলাবিহীন।
  3. অনলাইন এবং অফলাইন সুবিধা: বিভিন্ন অনলাইন এবং অফলাইন স্টোরে এই সুবিধা পাওয়া যায়।
  4. বিভিন্ন অফার ও ডিসকাউন্ট: কিস্তিতে কেনার সময় বিভিন্ন অফার ও ডিসকাউন্ট পাওয়া যায়, যা ক্রেতার জন্য অতিরিক্ত সুবিধা প্রদান করে।

কিস্তিতে মোবাইল কেনার জন্য প্রয়োজনীয় নথিপত্র

ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল কেনার জন্য সাধারণত কিছু নির্দিষ্ট নথিপত্রের প্রয়োজন হয়:

  1. পরিচয় পত্র: যেমন জাতীয় পরিচয় পত্র, পাসপোর্ট বা ড্রাইভিং লাইসেন্স।
  2. ঠিকানা প্রমাণ: যেমন গ্যাস বিল, বিদ্যুৎ বিল বা ব্যাংক স্টেটমেন্ট।
  3. আয় প্রমাণ: যেমন বেতন স্লিপ বা আয়কর রিটার্ন।
  4. ব্যাংক স্টেটমেন্ট: সর্বশেষ ছয় মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট।

ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল: কোম্পানি অথবা দোকান

ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল বিক্রি করে এমন কিছু কোম্পানি এবং দোকান রয়েছে যা আপনি ব্যবহার করতে পারেন। ২০২৪ সালে এই সুবিধা আরও জনপ্রিয় হতে যাচ্ছে। নিচে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের নাম এবং তাদের সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ দেওয়া হল:

১. গ্রামীণফোন

গ্রামীণফোন তাদের গ্রাহকদের জন্য বিভিন্ন মোবাইল ফোন ইএমআই সুবিধায় বিক্রি করে। তাদের বিভিন্ন প্রিপেইড এবং পোস্টপেইড প্ল্যানের সাথে মোবাইল ফোন কেনার সুবিধা রয়েছে।

২. রবি

রবি তাদের গ্রাহকদের জন্য ইএমআই সুবিধায় মোবাইল ফোন বিক্রি করে। তারা বিভিন্ন জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের মোবাইল ফোন ইএমআই সুবিধায় প্রদান করে থাকে।

৩. স্যামসাং বাংলাদেশ

স্যামসাং বাংলাদেশ সরাসরি তাদের ওয়েবসাইট এবং অনুমোদিত রিটেইল স্টোরগুলির মাধ্যমে ইএমআই সুবিধায় মোবাইল ফোন বিক্রি করে।

৪. বেস্ট ইলেকট্রনিক্স

বেস্ট ইলেকট্রনিক্স বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মোবাইল ফোন ইএমআই সুবিধায় বিক্রি করে। তারা বিভিন্ন ব্যাংকের সাথে পার্টনারশিপ করে এই সুবিধা প্রদান করে।

৫. আরএফএল ইলেকট্রনিক্স

আরএফএল ইলেকট্রনিক্স তাদের নিজস্ব স্টোর এবং অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে ইএমআই সুবিধায় মোবাইল ফোন বিক্রি করে।

৬. দারাজ বাংলাদেশ

দারাজ একটি জনপ্রিয় ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম যা বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মোবাইল ফোন ইএমআই সুবিধায় বিক্রি করে। তাদের ওয়েবসাইট এবং মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে এই সুবিধা পাওয়া যায়।

৭. ইজিয়ারশপ

ইজিয়ারশপ একটি অনলাইন প্ল্যাটফর্ম যা বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মোবাইল ফোন ইএমআই সুবিধায় বিক্রি করে।

৮. পাইকারা

পাইকারা বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স পণ্য এবং মোবাইল ফোন ইএমআই সুবিধায় বিক্রি করে।

৯. ব্র্যাক ব্যাংক

ব্র্যাক ব্যাংক তাদের গ্রাহকদের জন্য ইএমআই সুবিধায় মোবাইল ফোন কেনার ঋণ প্রদান করে।

১০. সিটি ব্যাংক

সিটি ব্যাংক তাদের ক্রেডিট কার্ড ছাড়াই ইএমআই সুবিধা দিয়ে মোবাইল ফোন কেনার সুবিধা প্রদান করে।

এগুলি ছাড়াও আরো অনেক প্রতিষ্ঠান এবং দোকান রয়েছে যারা ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল ফোন বিক্রি করে। এই সুবিধা গ্রহণের আগে অবশ্যই প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের শর্তাবলী এবং সুবিধাগুলি বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া উচিত।

২০২৪ সালে কিস্তিতে মোবাইল কেনার জন্য শীর্ষ ১০ ব্যাংক

২০২৪ সালে বাংলাদেশে কিস্তিতে মোবাইল কেনার জন্য নিচে উল্লেখিত ১০টি ব্যাংক অত্যন্ত জনপ্রিয়:

  1. ব্র্যাক ব্যাংক
  2. ডাচ-বাংলা ব্যাংক
  3. ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড
  4. প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড
  5. সিটি ব্যাংক এনএ
  6. ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড
  7. ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড
  8. জনতা ব্যাংক লিমিটেড
  9. সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড
  10. মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড

কোন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ভালো: হিডেন চার্জ নাই, EMI সুবিধা & ডুয়েল কারেন্সি

কিস্তিতে মোবাইল কেনার জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম

২০২৪ সালে ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল কেনার জন্য বেশ কিছু জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম রয়েছে। নিচে কিছু উল্লেখযোগ্য প্ল্যাটফর্ম দেওয়া হল:

  1. দারাজ: দারাজ একটি বৃহত্তম অনলাইন শপিং প্ল্যাটফর্ম, যেখানে বিভিন্ন মোবাইল ফোন কিস্তিতে কেনার সুযোগ রয়েছে।
  2. পিকাবু: পিকাবু একটি অনলাইন শপিং প্ল্যাটফর্ম, যেখানে বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স পণ্য কিস্তিতে কেনা যায়।
  3. শপআপ: শপআপ একটি অনলাইন মার্কেটপ্লেস, যেখানে কিস্তিতে মোবাইল ফোন কেনার সুযোগ রয়েছে।

কিস্তিতে মোবাইল কেনার কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস

  1. অফার এবং ডিসকাউন্ট: কিস্তিতে মোবাইল কেনার সময় বিভিন্ন অফার এবং ডিসকাউন্ট সম্পর্কে জেনে নিন।
  2. পেমেন্ট প্ল্যান: পেমেন্ট প্ল্যান সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন এবং আপনার আয়ের সাথে মিলিয়ে পেমেন্ট প্ল্যান নির্বাচন করুন।
  3. নথিপত্র: প্রয়োজনীয় সব নথিপত্র প্রস্তুত রাখুন।
  4. ব্যাংক বা ফিনান্স কোম্পানির শর্তাবলী: ব্যাংক বা ফিনান্স কোম্পানির শর্তাবলী সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন।

সিটি ব্যাংক ক্রেডিট কার্ড পাওয়ার যোগ্যতা: সার্ভিস চার্জ, অফার ও সুবিধা

কিস্তিতে মোবাইল FAQs

কিস্তিতে মোবাইল কিনতে কি ক্রেডিট কার্ড প্রয়োজন?

না, ক্রেডিট কার্ড ছাড়াই কিস্তিতে মোবাইল কেনা যায়। অনেক ব্যাংক এবং ফিনান্স কোম্পানি এই সুবিধা প্রদান করে থাকে।

কিস্তিতে মোবাইল কেনার সময় কি সুদ প্রযোজ্য হয়?

হ্যাঁ, অনেক ক্ষেত্রে কিস্তিতে কেনার সময় সুদ প্রযোজ্য হয়। তবে, কিছু ব্যাংক এবং কোম্পানি সুদ মুক্ত কিস্তিতে মোবাইল কেনার সুযোগও প্রদান করে থাকে।

কিস্তিতে মোবাইল কেনার জন্য কি কি নথিপত্রের প্রয়োজন হয়?

সাধারণত পরিচয় পত্র, ঠিকানা প্রমাণ, আয় প্রমাণ এবং ব্যাংক স্টেটমেন্ট প্রয়োজন হয়।

কিস্তিতে মোবাইল কেনার জন্য কি কি সুবিধা পাওয়া যায়?

অর্থনৈতিক সুবিধা, সহজ প্রক্রিয়া, অনলাইন এবং অফলাইন সুবিধা, এবং বিভিন্ন অফার ও ডিসকাউন্ট পাওয়া যায়।

কোন কোন প্ল্যাটফর্মে কিস্তিতে মোবাইল কেনা যায়?

দারাজ, পিকাবু, এবং শপআপ প্ল্যাটফর্মে কিস্তিতে মোবাইল কেনা যায়।

২০২৪ সালে কোন কোন ব্যাংক কিস্তিতে মোবাইল কেনার সুবিধা প্রদান করে?

ব্র্যাক ব্যাংক, ডাচ-বাংলা ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড সহ মোট ১০টি ব্যাংক এই সুবিধা প্রদান করে থাকে।

কিস্তিতে মোবাইল কেনার জন্য কি কোন অফার বা ডিসকাউন্ট পাওয়া যায়?

হ্যাঁ, অনেক সময় কিস্তিতে মোবাইল কেনার সময় বিভিন্ন অফার এবং ডিসকাউন্ট পাওয়া যায়।

কিস্তিতে মোবাইল কেনার জন্য কি পেমেন্ট প্ল্যান রয়েছে?

হ্যাঁ, বিভিন্ন পেমেন্ট প্ল্যান পাওয়া যায় যা আপনার আয়ের সাথে মিলিয়ে নির্বাচন করতে পারেন।

কিস্তিতে মোবাইল কেনার প্রক্রিয়া কি সহজ?

হ্যাঁ, ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল কেনার প্রক্রিয়া সাধারণত খুবই সহজ এবং ঝামেলাবিহীন।

কিস্তিতে মোবাইল কেনার জন্য কোন ব্যাংকের শর্তাবলী কি জানতে হবে?

হ্যাঁ, ব্যাংক বা ফিনান্স কোম্পানির শর্তাবলী সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া উচিত।

উপরিউক্ত তথ্যগুলো ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল কেনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই আর্টিকেলে দেয়া তথ্যগুলো ২০২৪ সালে মোবাইল কেনার সময় আপনাকে সাহায্য করবে।

উপসংহার

ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল কেনা এখন অনেক সহজ এবং সুবিধাজনক। বিভিন্ন মোবাইল ফাইন্যান্সিং কোম্পানি, ইএমআই স্কিম, এবং পেয়ার লেটার অ্যাপসের মাধ্যমে আপনি সহজেই আপনার প্রয়োজনীয় মোবাইল ফোন কিনতে পারেন। ২০২৪ সালে এই সুবিধা আরো সহজতর এবং সাশ্রয়ী হতে যাচ্ছে।

আশা করছি, এই আর্টিকেলটি আপনাদের ক্রেডিট কার্ড ছাড়া কিস্তিতে মোবাইল কেনার বিভিন্ন পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা দিয়েছে। যদি আপনার আরও কোনো প্রশ্ন থাকে, তবে নিচের প্রশ্নোত্তর অংশ থেকে উত্তর পেতে পারেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top