বিনামূল্যে মাস্টার কার্ড নিন- Pyypl virtual mastercard

বিনামূল্যে মাস্টার কার্ড: আজকে আমি আলোচনা করব কিভাবে আপনি খুব সহজেই বাংলাদেশ থেকে Pyypl virtual mastercard. সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ভার্চুয়াল Mastercard পাবেন। এর জন্য আপনাকে অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় করতে হবে না।

এটা ডুয়েল কারেন্সি মাস্টারকার্ড। অর্থাৎ ইন্টার্নেশনাল ওয়েবসাইট থেকে  কেনাকাটা করতে পারবেন। এছাড়াও ফেসবুক  বুষ্ট সহ অনেক কাজ করতে পারবেন। আপনি চাইলে এই মাস্টার কার্ড ব্যবহার করে ইন্টার্নেশনাল শিপিং করতে পারবেন।

যারা ইন্টার্নেশনাল ওয়েবসাইট থেকে ডোমেইন এবং হোস্টিং কেনার সময় সমস্যায় পড়েন। তারা এই  ভার্চুয়াল মাস্টার কার্ডটি ব্যবহার করে খুব সহজেই ইন্টারন্যাশনাল ওয়েবসাইট থেকে ডোমেইন হোস্টিং কিনতে পারবেন।

কিভাবে Pyypl virtual mastercard পাবেন? এই বিষয়ে আজকে বিস্তারিত আলোচনা করব। আমি এই আর্টিকেল বিস্তারিত ইমেজ আকারে উপস্থাপন করব, যাতে আপনারা সহজেই এই ভার্চুয়াল মাস্টারকার্ডটি পেতে পারেন।

মাস্টার কার্ড  কি?

Mastercard হলো অনলাইনে লেনদেন করার জন্য এক ধরনের বিশেষ কার্ড। এই কার্ডটি ব্যবহার করে আপনি এটিএম বুথ থেকে টাকা তোলা, অনলাইন থেকে কেনাকাটা সহ যাবতীয় লেনদেন করতে পারবেন।

তবে আন্তর্জাতিক বাজারে আপনার মাস্টার কার্ড ব্যবহার করার জন্য অবশ্যই আপনার ইন্টারন্যাশনাল মাস্টার কার্ড সংগ্রহ করতে হবে। অর্থাৎ আপনি যদি ডাচ-বাংলা ব্যাংক থেকে একটি মাস্টারকার্ড   নেন। এটি শুধুমাত্র বাংলাদেশি ব্যবহার করতে পারবেন। 

যদি আপনি একটি ইন্টার্নেশনালি মাস্টারকার্ড নেই অর্থাৎ ডুয়েল কারেন্সি মাস্টারকার্ড। তাহলে আপনি এই মাস্টারকার্ডটি সব দেশেই ব্যবহার করতে পারবেন।  কারণ ডুয়েল কারেন্সি মাস্টার কার্ড দিয়ে আপনি ডলার লেনদেন করতে পারবেন। এবং আপনি সব দেশেই ডলার তুলতে পারবেন কিন্তু আপনি সব দেশেই টাকা তুলতে পারবেন না। 

সুতরাং ইন্টারন্যাশনালি লেনদেন করার জন্যে অবশ্যই আপনার একটি ডুয়েল কারেন্সি মাস্টার কার্ড ব্যবহার করতে হবে। 

Pyypl virtual mastercard

মাস্টার কার্ড

Pyypl ভার্চুয়াল মাস্টারকার্ড ১০০% সুরক্ষিত একটি প্রিপেইড মাস্টার কার্ড। Pyypl ভার্চুয়ালমাস্টার কার্ডটি ব্যবহার করে আপনি আন্তর্জাতিক ভাবে কেনাকাটা করতে পারবেন। যেমন আপনি একটি বিদেশি ওয়েবসাইট থেকে হোস্টিং ক্রয় করবেন এর জন্য আপনার ডলারের প্রয়োজন

আপনি যদি বাংলাদেশী কোন মাস্টার কার্ড ব্যবহার করে পেমেন্ট করতে যান। তাহলে অবশ্যই আপনি পেমেন্ট করতে পারবেন না। এর জন্য আপনাকে ডুয়েল কারেন্সি মাস্টার কার্ডের প্রয়োজন হবে।  অবশ্যই আপনি Pyypl virtual mastercard ব্যবহার করে ডোমেইন ও হোস্টিং কিনতে পারবে না।

Pyypl হল সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং বাহরাইনে অবস্থিত একটি সরকারী আর্থিক পরিষেবা সংস্থা। সংযুক্ত আরব আমিরাতের আর্থিক পরিষেবা নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ এবং বাহরাইনের কেন্দ্রীয় ব্যাংক দ্বারা অনুমোদিত। সুতরাং এটা 100% নিরাপদ এবং সুরক্ষিত।

বাংলাদেশ থেকে ইন্টারন্যাশনাল মাস্টার কার্ড পাওয়ার উপায়

ইন্টারন্যাশনাল মাস্টার কার্ড এর মধ্যে বাংলাদেশ জনপ্রিয় হচ্ছে পেওনিয়ার মাস্টার কার্ড, নেটেলার মাস্টার কার্ড , স্ক্রিল ও কিউকার্ড মাস্টার কার্ড। তবে এই কার্ডগুলো আপনি সহজেই পাবেন না। পেওনিয়ার কার্ড পেতে হলে আপনাকে ফ্রিল্যান্সার হতে হবে।

অন্যান্য কার্ড গুলো পেতে হলে আপনার অনেকগুলো কঠিন স্টেপ ফলো করে আবেদন করতে হবে।  কিন্তু সেই তুলনায় আপনি Pyypl virtual mastercard খুব সহজেই পেয়ে যাবেন। এর জন্য আপনার কঠিন কোন স্টেপ ফলো করতে হবে না শুধু আবেদন করুন এবং পেয়ে যাবেন। 

এবং অন্যান্য মাস্টারকার্ড গুলোতে ডলার লোড করার তে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হয়। কিন্তু সেই তুলনায় আপনি পেয়াল ভার্চুয়াল মাস্টার কার্ড ব্যবহার করে খুব সহজেই ডলার লোড করতে পারবেন। এবং সেই ডলার ব্যবহার করে কেনাকাটা করতে পারবেন। 

Pyypl Mastercard পাবার উপায়

এখন আমি আপনাদের দেখাবো কিভাবে আপনারা Pyypl মাস্টারকার্ড পাবেন। এর জন্য কয়েকটি স্টেপ ফলো করতে হবে। আমি সমস্ত স্টেপ গুলো ইমেজ আকারে উপস্থাপন করব। 

স্টেপ -1: প্রথমে আপনি গুগল প্লে স্টোরে যেয়ে Pyypl লিখে সার্চ দিন। তারপরে Pyypl অফিশিয়াল অ্যাপটি চলে আসবে। নিচের চিত্রটি ভালভাবে দেখুন। এখন Pyypl অ্যাপটি ডাউনলোড করুন এবং আপনার ফোনে  ইন্সটল করুন।

হোস্টিং

স্টেপ -2: Pyypl ইনস্টল করার পর অ্যাপটি ওপেন করুন। কার্ডের জন্য আবেদন করার জন্য আপনার অরিজিনাল ইনফরমেশন দিয়ে আবেদন করুন। প্রথমে আপনার মোবাইল নাম্বার চাইবে। আপনি আপনার মোবাইল নাম্বার দিন।

স্টেপ -3: মোবাইল নাম্বারটিও ভেরিফাই করার পর আপনাকে পাসপোর্ট অথবা আইডি কার্ড দিয়ে আবেদন করতে হবে।  এরপর আপনি ন্যাশনাল আইডি কার্ড দিয়ে অপশনে ক্লিক করুন।

স্টেপ -4: আইডি কার্ড সিলেক্ট করার পর আপনার আইডি কার্ডের সামনের অংশের একটি ছবি এবং পেছনের একটি ছবি তুলে আপলোড করুন। অবশ্যই আপনাকে আপনার অরজিনাল আইডি কার্ড ব্যবহার করতে হবে।

স্টেপ -5: আইডি কার্ডটি আপলোড করার পর আপনার নাম জন্ম তারিখ এবং আপনার আইডি নম্বর সমস্ত কিছু অটোমেটিকলি বসে যাবে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে কনফার্ম বাটনে ক্লিক করুন এবং পরবর্তী  স্টেপে চলে যায়।

স্টেপ -6: এই স্টেপে আপনাকে Pyypl টার্মস এন্ড কন্ডিশন  agree  তে ক্লিক দিতে হবে। তারপর আপনি পরবর্তী স্টেপে চলে যাবেন।

স্টেপ -6: পরবর্তী স্টেপে আপনাকে একটি মাস্টার কার্ড দেওয়া হবে। নিজে চিত্রটি দেখতে পাচ্ছেন। এখানে একটি মাস্টার কার্ডে দেওয়া আছে। আপনি এটা আপনার কাজে ব্যবহার করতে পারবেন। এখন আপনি স্টাট ইউজিং বাটনটিতে ক্লিক করুন

সুতরাং দেখতেই পাচ্ছেন আমি  Pyypl virtual mastercard পেয়ে গেছি। এই কার্ড ব্যবহার করে ডোমেইন-হোস্টিং সহ অনলাইনে যাবতীয় কেনাকাটা সহজেই করতে পারবেন। প্রতিবার কার্ডটি ব্যবহার করার জন্য আপনার প্রত্যেকটা ট্রানজেকশনের জন্য তারা কিছু fee কাটবে। নিচের চিত্রটি দেখতে পারছেন আমি আমার ভার্চুয়াল মাস্টারকার্ডের অপশনে আছি।

মাস্টার কার্ড

শেষ কথা:

আমি অলরেডি দেখিয়ে-দিয়েছি কিভাবে আপনি খুব সহজেই একটি অনলাইন ভার্চুয়াল Mastercard পেতে পারেন।আমি অলরেডি এই ভার্চুয়াল Mastercard ব্যবহার করতেছি যদি আমার প্রিয় নিয়ার ভার্চুয়াল মাস্টার কার্ড রয়েছে। তবে আপনিও এভাবে একটি ভার্চুয়াল Mastercard পেয়ে কার্ড ব্যবহার করতে পারবেন

তবে প্রত্যেকটা ট্রানজাকশন এর জন্য আপনাকে কিছু fee দিতে হবে।এটা প্রত্যেকটা ব্যাংকের ক্ষেত্রে এমন ঘটে থাকে। তুমি অনলাইনে যাবতীয় কেনাকাটায় সমস্যা সমাধান হয়েছে আশা করি। 

আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ।এরকম অনলাইন টিপস এন্ড ট্রিকস,  ফ্রিল্যান্সিং, অনলাইন ইনকাম, ব্লগিং ইত্যাদি সম্পর্কে রেগুলার টিপস এন্ড ট্রিক্স পেতে আপডেট পেতে আমার সাইটে সাথেই থাকুন। সবাইকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top